মঙ্গলবার 5 রবীউল আউওয়াল 1440 - 13 নভেম্বর 2018
বাংলা

আল্লাহ তাআলার বাণী ‍"মুমিন তো তারাই, যারা আল্লাহ ও তাঁর রসূলের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে এবং রসূলের সাথে কোন সমষ্টিগত কাজে শরীক হলে তাঁর কাছ থেকে অনুমতি গ্রহণ ব্যতীত চলে যায় না।"[সূরা নুর, আয়াত: ৬২] আমরা এই আয়াতের অনুসরণ কিভাবে করব?

129724

প্রকাশকাল : 03-12-2013

পঠিত : 3938

প্রশ্ন

আল্লাহ তাআলা ইরাশাদ করেন: ‍"মুমিন তো তারাই, যারা আল্লাহ ও তাঁর রসূলের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে এবং রসূলের সাথে কোন সমষ্টিগত কাজে শরীক হলে তাঁর কাছ থেকে অনুমতি গ্রহণ ব্যতীত চলে যায় না।"[সূরা নুর, আয়াত: ৬২] আমরা এ আয়াতটি কিভাবে অনুসরণ করব এবং নিজেদের জীবনে কিভাবে বাস্তবায়ন করব?

উত্তর

জবাব:

আলহামদুলিল্লাহ (সমস্তপ্রশংসাবিশ্বজাহানেরপ্রতিপালকআল্লাহরজন্য)।

এক:

এআয়াতেকারীমানাযিলকরেনবীকরিম (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরসাথেসাহাবায়েকেরামেরআচার-ব্যবহারকীরূপহবেএসংক্রান্তকিছুশিষ্টাচারশিক্ষাদেয়াহয়েছেএবংমুনাফিকদেরসাদৃশ্যঅবলম্বনহতেসাবধানকরাহয়েছে; যারাকোনপ্রকারসচ্চরিত্রবাশিষ্টাচারেরপরোয়াকরেনা।আল্লাহতাআলাবলেন: "মুমিনতোতারাই, যারাআল্লাহওতাঁররসূলেরপ্রতিঈমানরাখেএবংরসূলেরসাথেকোনসমষ্টিগতকাজেশরীকহলেতাঁরকাছথেকেঅনুমতিগ্রহণব্যতীতচলেযায়না।যারাআপনারকাছেঅনুমতিপ্রার্থনাকরে, তারাইআল্লাহওতাঁররসূলেরউপরঈমানরাখে।অতএবতারাআপনারকাছেতাদেরকোনকাজেরজন্যেঅনুমতিচাইলেআপনিতাদেরমধ্যেযাকেইচ্ছাঅনুমতিদিনএবংতাদেরজন্যআল্লাহরকাছেক্ষমাপ্রার্থনাকরুন।আল্লাহক্ষমাশীল, মেহেরবান।"[সূরানুর, আয়াত: ৬২]

ইবনেকাছীর (রহঃ) বলেন: এখানেআল্লাহতাআলামুমিনবান্দাদেরকেএকটিআদবশিক্ষাদিয়েছেন।তিনিঈমানদারগণকেকোনস্থানেপ্রবেশেরপূর্বেযেমনঅনুমতিনেয়ারআদেশদিয়েছেনতেমনিপ্রস্থানেরপূর্বেওঅনুমতিনেয়ারআদেশদিয়েছেন।বিশেষতঃতারাযদিসমষ্টিগতকোনকাজেরাসূলের (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) সাথেএকত্রিতহয়, যেমন- জুমারনামায, ঈদেরনামায, জামায়াতেনামাযঅথবাকোনপরামর্শসভাইত্যাদি, সেক্ষেত্রেপ্রস্থানেরপূর্বেরাসূলের (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) নিকটঅনুমতিচাওয়াবাপরামর্শচাওয়ারনির্দেশদিয়েছেন।যেব্যক্তিঅনুমতিচায়সেপূর্ণঈমানদার।

এরপরআল্লাহতাআলারাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) কেআদেশদিয়েছেন- মুমিনদেরকেউযদিঅনুমতিচায়তিনিযেনতাকেঅনুমতিপ্রদানকরেন।তাইতিনিবলেছেন: "আপনিতাদেরমধ্যেযাকেইচ্ছাঅনুমতিদিনএবংতাদেরজন্যআল্লাহরকাছেক্ষমাপ্রার্থনাকরুন।আল্লাহক্ষমাশীল, মেহেরবান"

আবুহুরায়রা (রাঃ) হতেবর্ণিততিনিবলেন, রাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) বলেছেন: "তোমাদেরকেউযখনকোনমজলিসআসেতখনসেযেনমজলিসেরলোকদেরকেসালামদেয়এবংতোমাদেরকেউযদিমজলিসথেকেচলেযেতেচায়তাহলেওসেযেনসালামদেয়।মর্যাদারদিকথেকেদ্বিতীয়বারেরসালামপ্রথমবারেরসালামেরচেয়েকোনঅংশেকমনয়।হাদিসটিইমামতিরমিযিবর্ণনাকরেবলেছেন: হাসান।” [তাফসীরেইবনেকাছীর, পৃষ্ঠা- ৬/৮৮]

আল্লামাসা'দী (রহঃ) বলেন: এটিআল্লাহরপক্ষহতেমুমিনবান্দাদেরজন্যএকটিদিকনির্দেশনা।মুমিনরাযদিকোনসমষ্টিগতবিষয়েরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরসাথেএকত্রিতহয়, অর্থাৎযেবিষয়টিরপ্রয়োজনীয়তাবাকল্যাণেরদিকহলোসকলেউপস্থিতথাকা।যেমন- জিহাদবাপরামর্শমূলকসভাইত্যাদিসমষ্টিগতকাজেরক্ষেত্রেমঙ্গলজনকহলোসকলেউপস্থিতথাকা, কেউবিচ্ছিন্ননাথাকা।অতএবআল্লাহওতাঁররাসূলেরপ্রতিপূর্ণঈমানদারব্যক্তিএধরনেরকাজরেখেঅন্যকোনকাজেযাওয়ারআগেঅথবাবাড়ীফেরারআগেঅথবাঅন্যকোনপ্রয়োজনেযাওয়ারআগেরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরকাছথেকেবাতাঁরপ্রতিনিধিরনিকটথেকেঅনুমতিগ্রহণকরবে।আয়াতেঅনুমতিছাড়ানা-যাওয়াকেঈমানেরঅনিবার্যদাবীহিসেবেআখ্যায়িতকরাহয়েছেএবংএকর্মেরজন্যঈমানদারদেরপ্রশংসাকরাহয়েছে।এভাবেমুমিনদেরকেরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরসাথেওদায়িত্বশীলেরসাথেআদবরক্ষাকরারশিক্ষাদেয়াহয়েছে।আল্লাহএভাবেবলেছেন: "যারাআপনারকাছেঅনুমতিপ্রার্থনাকরে, তারাইআল্লাহওতাঁররসূলেরঈমানরাখে।"

কিন্তুরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) কিতাদেরকেঅনুমতিপ্রদানকরবেন?রাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) কর্তৃকতাদেরকেঅনুমতিদেয়ারক্ষেত্রেদুইটিশর্তরয়েছে:

(১)অনুমতিপ্রার্থনাকারীরএকান্তবিশেষকোনকাজবাপ্রয়োজনথাকা।বিনাওজরেঅনুমতিচাইলেঅনুমতিদেয়াযাবেনা।

(২)যারপ্রয়োজনতাকেঅনুমতিচাইতেহবেএবংরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) কর্তৃকতাকেঅনুমতিদেয়াটাকল্যাণেরদাবীহতেহবে।এছাড়াঅনুমতিদাতারওপরকোনক্ষতিযেননাবর্তায়।আল্লাহবলেছেন: "অতএবতারাআপনারকাছেতাদেরকোনকাজেরজন্যঅনুমতিচাইলেআপনিতাদেরমধ্যেযাকেইচ্ছাঅনুমতিদিন।"অতএবকোনঈমানদারতারকোনওজরেরকারণেযদিমজলিসত্যাগেরঅনুমতিচায়কিন্তুরাসূলের (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) বিবেচনায়এইব্যক্তিরমজলিসত্যাগনাকরারমধ্যেসার্বিককল্যাণনিহিতথাকেতাহলেতিনিতাকেঅনুমতিদিবেননা।তদুপরিকোনব্যক্তিযদিঅনুমতিচায়এবংউল্লেখিতদুইটিশর্তপূরণসাপেক্ষেরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) তাকেঅনুমতিদিয়েথাকেনতথাপিআল্লাহতাঁররাসূলকে (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এইব্যক্তিরজন্যক্ষমাপ্রার্থনাকরারনির্দেশদিয়েছেন।কারণহতেপারেএইব্যক্তিঅনুমতিগ্রহণকরেকোনকসুরকরেছেন।এজন্যআল্লাহতাআলাবলেছেন- "এবংতাদেরজন্যআল্লাহরকাছেক্ষমাপ্রার্থনাকরুন।আল্লাহক্ষমাশীল, মেহেরবান"।অর্থাৎআল্লাহইতাদেরগুনাহখাতাক্ষমাকরেনএবংওজরেরকারণেঅনুমতিগ্রহণকেবৈধকরেতাদেরপ্রতিদয়াকরেছেন। [তাফসিরেসা'দী, পৃষ্ঠা- ৫৭৬]

দুই:

এযুগেওআমরাএআয়াতহতেউপকৃতহতেপারিএবংকয়েকটিপদ্ধতিতেতানিজেদেরজীবনেবাস্তবায়নকরতেপারি:

  • ইসলামীশরিয়ারঅনুশাসনওরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরআদর্শকেমেনেচলা।এইমানারমধ্যেরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরনিকটহতেপরোক্ষঅনুমতিগ্রহণেররূপপাওয়াযায়।ইবনুলকাইয়্যেম (রহঃ) বলেন: আয়াতেরমধ্যেমজলিসপ্রস্থানেরআগেরসূলেরনিকটহতেঅনুমতিগ্রহণকরাকেঈমানেরঅনিবার্যদাবীহিসেবেউল্লেখকরাহয়েছে।সুতরাংকোনইসলামিজ্ঞানগতবিষয়েতাঁরঅনুমোদনব্যতিরেকেকোনমতবাপথগ্রহণকরাটাঈমানেরঅনিবার্যদাবীহওয়াটাআরোবেশীস্বাভাবিক।[ই'লামুলমুআক্কিঈন, পৃষ্ঠা- ১/৫১]
  • সমষ্টিগতকোনকাজথেকেপ্রস্থানেরপূর্বেদায়িত্বশীলেরঅনুমতিগ্রহণকরারমধ্যেমুসলিমউম্মাহরজন্যকল্যাণনিহিতরয়েছে।একারণেইমামবুখারীতারসংকলিতসহীহহাদিসেরগ্রন্থেএকটিপরিচ্ছেদেরশিরোনামদিয়েছেনএভাবে- "নেতারনিকটকোনব্যক্তিরঅনুমতিপ্রার্থনা"।দলীলহচ্ছেআল্লাহরবাণী- "মুমিনতোতারাই, যারাআল্লাহওতাঁররসূলেরওপরঈমানরাখেএবংরসূলেরসাথেকোনসমষ্টিগতকাজেশরীকহলেতাঁরকাছথেকেঅনুমতিগ্রহণব্যতীতচলেযায়না।"ইতিপূর্বেউল্লেখিতসা'দীরবক্তব্যেএসেছেযে, আয়াতেকারীমাটিরাসূলের (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) নিকটহতেওদায়িত্বশীলেরনিকটহতেঅনুমতিপ্রার্থনারবিধানপ্রসঙ্গে।আল-মাওসুআআল-ফিকহিয়া (৩/১৫৫) গ্রন্থেএসেছেযে, সার্বিককল্যাণরক্ষাওসংরক্ষণেকাউকেদায়িত্বশীলনিযুক্তকরাহয়।অতএবদায়িত্বশীলব্যক্তিরদায়িত্বাধীনবিষয়েঅবশ্যইতারনিকটহতেঅনুমতিচাইতেহবে।যাতেপ্রত্যেকটিবিষয়সুষ্ঠুভাবেপরিচালিতহয়এবংবিশৃঙ্খলানাঘটে।এবিধানেরশাখা-প্রশাখাঅনেক।উদাহরণতঃকোনসেনাপতিযদিতারসৈন্যদেরনিয়েকোনঅভিযানেঝাঁপিয়েপড়েনসেক্ষেত্রেসেনাপতিরঅনুমতিব্যতিরেকেকোনজিনিসপত্রআনাবাসংগ্রহকরারজন্যব্যারাকথেকেবেরহওয়াঅথবাকোনশত্রুরসাথেমল্লযুদ্ধেলিপ্তহওয়াঅথবাকোনকথাপ্রচারকরাকোনসৈনিকেরজন্যবৈধহবেনা।কারণনিজেরসৈন্যদেরপ্রকৃতঅবস্থাসম্পর্কেওশত্রুরপ্রকৃতঅবস্থা, তাদেরঅবস্থান, তাদেরদূরত্ব-নৈকট্যইত্যাদিসম্পর্কেসেনাপতিইসম্যকঅবহিত।সুতরাংকোনসৈনিকযদিবিচ্ছিন্নভাবেবেরহয়তাহলেসেকোনগুপ্তহামলারশিকারহওয়াথেকেনিরাপদনয়, হতেপারেশত্রুরাতাকেগ্রেফতারকরেনিয়েযাবে।অথবাজানানা-থাকারকারণেসেনাপতিতাকেরেখেসৈন্যবাহিনীনিয়েএকস্থানথেকেঅন্যস্থানেসরেযেতেপারেন।এতেকরেআটককৃতসৈন্যধুকেধুকেমরবে।যেব্যক্তিকোনফৌজেরসাথেঅভিযানেরয়েছেসেনাদলযদিএকস্থানথেকেঅন্যস্থানেস্থানান্তরিতহতেচায়কিন্তুকিছুসংখ্যকসৈন্যযদিপরেযেতেচায়তাহলেঅনুমতিব্যতিরেকেফৌজেরসঙ্গত্যাগকরাতাদেরজন্যবৈধহবেনা।রাষ্ট্রপ্রধানবাগভর্নরযদিদূরদৃষ্টিসম্পন্নব্যক্তিবর্গেরসাথেপরামর্শকরারজন্যকোনসভাআহ্বানকরেনসেক্ষেত্রেওঅনুমতিব্যতিরেকেকেউসভাত্যাগকরতেপারবেনা।কারণহতেপারেআমীরতারমতামতেরমুখাপেক্ষীহয়েথাকবেন।আল্লাহতাআলাবলেন: "মুমিনতোতারাই, যারাআল্লাহওতাঁররসূলেরপ্রতিঈমানরাখেএবংরসূলেরসাথেকোনসমষ্টিগতকাজেশরীকহলেতাঁরকাছথেকেঅনুমতিগ্রহণব্যতীতচলেযায়না।যারাআপনারকাছেঅনুমতিপ্রার্থনাকরে, তারাইআল্লাহওতাঁররসূলেরওপরঈমানরাখে।"আয়াতেকারীমাটিশুধুরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরসাথেখাসনয়।কারণজনস্বার্থনিশ্চিতকরারক্ষেত্রেশাসকবর্গরাসূল (সাল্লাল্লাহুআলাইহিওয়াসাল্লাম) এরপ্রতিনিধি।অতএবআয়াতটিতাদেরক্ষেত্রেওপ্রযোজ্যহবে।আল্লাহইভালজানেন।

সূত্র: ইসলাম জিজ্ঞাসা ও জবাব

মতামত প্রেরণ