শনিবার 20 সফর 1441 - 19 অক্টোবর 2019
বাংলা

কিছুকথা

ইসলাম জিজ্ঞাসা ও জবাব ওয়েবসাইট একটি দাওয়াতি, গবেষণাধর্মী ও শিক্ষামূলক ওয়েবসাইট। এ ওয়েব সাইটের লক্ষ্য হচ্ছে– মুসলিম কিংবা অমুসলিম প্রশ্নকারীর পক্ষ থেকে ইসলাম সম্পর্কে প্রাপ্ত প্রশ্নাবলির গবেষণানির্ভর, দলিলভিত্তিক এবং যতদূর সম্ভব বিস্তারিত ও সহজভাষায় উত্তর প্রদান। ইসলামী আলোচক ও লেখক শাইখ মুহাম্মদ সালেহ আল-মুনাজ্জিদ উত্তরগুলো তত্ত্বাবধান করেন।

শাইখ মুহাম্মদ সালেহ আল-মুনাজ্জিদ

জন্ম:

তিনি ৩০/১২/১৩৮০ হিঃ সালে জন্মগ্রহণ করেন।

লেখাপড়া:

প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাস্তর রিয়াদে সম্পন্ন করেন।

এরপর তিনি সৌদি আরবের 'যাহরান' শহরে স্থানান্তরিত হন এবং সেখানে অনার্স স্তর সমাপ্ত করেন।

তাঁর শিক্ষকমণ্ডলী:

তিনি হাজির হতেন শাইখ আব্দুল আযিয বিন বায এর ক্লাসে

শাইখ মুহাম্মদ বিন সালেহ আল-উছাইমীন-এর ক্লাসে

শাইখ আব্দুল্লাহ্‌ বিন আব্দুর রহমান আল-জিবরীন-এর ক্লাসে

আর যার কাছে তিনি সবচেয়ে বেশি পড়েছেন তিনি হচ্ছেন- শাইখ আব্দুর রহমান বিন নাসের আল-বার্‌রাক

কুরআনে কারীমের তেলাওয়াত শুদ্ধ করেছেন শাইখ সাঈদ আলে-আব্দুল্লাহ্‌-এর কাছে।

এছাড়াও যে শাইখদের থেকে তিনি উপকৃত হয়েছে:

শাইখ সালেহ বিন ফাউযান আলে-ফাউযান, শাইখ আব্দুল্লাহ্‌ বিন মুহাম্মদ আল-গুনাইমান, শাইখ মুহাম্মদ ওয়ালাদ সিদি আল-হাবিব আল-শানকিতি, শাইখ আব্দুল মুহসিন আয-যামিল, শাইখ আব্দুর রহমান বিন সালেহ আল-মাহমুদ।

প্রশ্নোত্তর দেয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি উপকৃত হয়েছেন: শাইখ আব্দুল আযিয বিন বায (রহঃ) থেকে। দীর্ঘ ১৫ বছর শাইখের সাথে তাঁর সম্পর্ক ছিল। শাইখ বিন বাযই তাঁকে পাঠদানের পথে নিয়ে আসেন। তিনিই দাম্মামস্থ 'দাওয়াত ও গাইডেন্স সেন্টার'-এর বরাবর পত্র লিখেন যাতে করে তারা আলোচনা পেশ, খোতবা প্রদান ও দারস প্রদান এর ক্ষেত্রে তাঁর সহযোগিতা গ্রহণ করে। শাইখ বিন বাযের বদৌলতে তিনি খতীব, ইমাম ও আলোচকে পরিণত হন।

দাওয়াতী অবদান:

'খোবার' শহরের উমর বিন আব্দুল আযিয জামে মসজিদের ইমাম ও খতীব।

তাঁর রয়েছে বেশ কিছু পাঠদান সভা; যেমন-

  • 'তাফসিরে ইবনে কাছির' গ্রন্থের পাঠ দান।
  • 'সহিহ বুখারী' গ্রন্থের ব্যাখ্যা করা।
  • 'ফাতাওয়া ইবনে তাইমিয়া' গ্রন্থের পাঠ দান।
  • 'সুনানে নাসাঈ' গ্রন্থের ব্যাখ্যা করা।
  • শাইখ মুহাম্মদ বিন আব্দুল ওয়াহ্‌হাব কর্তৃক রচিত 'কিতাবুত তাওহীদ' গ্রন্থের ব্যাখ্যা করা।
  • আব্দুর গনি আল-মাকদিসির রচিত 'উমদাতুল আহকাম' গ্রন্থের ব্যাখ্যা করা।
  • শাইখ সা'দীর রচিত 'মানহাজুস সালেকীন' এর ব্যাখ্যা করা।
  • তিনি রিয়াদ ও জেদ্দা শহরে প্রতি বুধবার চরিত্রগঠনমূলক সিরিজ আলোচনা ও মাসিক বিভিন্ন দারস পেশ করেন।
  • 'আল-কুরআনুল কারীম রেডিও'-তে প্রতি শনিবার দুপুর ২:০৫ মিনিটে بين النبي صلى الله عليه وسلم وأصحابه (নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও তাঁর সাহাবীবর্গের মাঝে) শিরোনামে তাঁর ধারাবাহিক অনুষ্ঠান রয়েছে। এবং প্রতি বুধবার দুপুর ১ টায় خطوات على طريق الإصلاح (সংশোধনের পদক্ষেপ) শিরোনামে অনুষ্ঠান রয়েছে। এ অনুষ্ঠানটি প্রতি সোমবার সন্ধ্যা ৬:৪৫ মিনিটে পুনঃ প্রচারিত হয়।
  • এ ছাড়াও দীর্ঘ ২৩ বছর যাবৎ বহু টেলিভিশন প্রোগ্রামে তাঁর অংশগ্রহণ রয়েছে এবং ৪৫০০ ঘন্টারও বেশি বিভিন্ন ক্লাশের অডিও লেকচার রয়েছে।

তাঁর রচিত গ্রন্থাবলীর মধ্যে রয়েছে:

১। 'কুওনু আলাল খাইরি আওয়ানা' (কল্যাণের সহযোগি হোন)।

২। 'আরবাউনা নসীহা লি ইসলাহিল বুয়ুত' (ঘর সংশোধনে ৪০টি নসীহত)।

৩। 'ছালাছা ও ছালাছিন সাবাবান লিল-খুশু' (খুশু অর্জনের ৩৩টি কারণ)।

৪। 'আল-আসালিব আন-নাবাওয়িয়্যা ফি ইলাজিল আখত্বাহ' (ভুল সংশোধনে নবীজির কৌশলসমূহ)।

৫। 'সাবউনা মাসয়ালা ফিস সিয়াম' (রোযার ৭০টি মাসয়ালা)।

৬। 'ইলাজুল হুমুম' (দুঃশ্চিন্তার ঔষধ)।

৭। 'আল-মানহিয়্যাআত আশ-শারঈয়্যাহ' (শরিয়তে নিষিদ্ধ বিষয়াবলী)।

৮। 'আল-মানহিয়্যাত আশ-শারঈয়্যাহ' (যে হারাম কাজগুলোকে অনেকে তুচ্ছ মনে করে)।

৯। 'মাযা তাফআলু ফিল হালালিত তালিয়া' (নিম্নোক্ত পরিস্থিতিগুলোতে আপনি কী করবেন)।

১০। 'যাহিরাতু যাফিল ঈমান' (ঈমানী দুর্বলতা)।

১১। 'ওয়াসায়িলুস সাবাত আলা দ্বীনিল্লাহ্‌' (আল্লাহ্‌র দ্বীনের উপর অবিচল থাকার উপায়সমূহ)।

১২। 'উরিদু আন আতুবা ওয়ালা কিং' (আমি তওবা করতে চাই; কিন্তু)।

১৩ 'শাকাওয়া ও হুলুল' (নানাবিধ সমস্যা ও প্রতিকার)।

১৪। 'সিরা' মাআত শাহাওয়াত' (কামনাবাসনার বিরুদ্ধে লড়াই)।

তিনি ১৯৯৬ সালে ইন্টারনেট ভিত্তিক islamqa.com (ইসলাম জিজ্ঞাসা ও জবাব) ওয়েবসাইটি তৈরী করে এবং এবং আজ অবধি ওয়েবসাইটির কার্যক্রম চালু আছে।

মতামত প্রেরণ